1. admin@bbcnewsbangla.com : admin :
  2. Sadiafrin011210@gmail.com : সাদিয়া আফরিন : সাদিয়া আফরিন
  3. infomvaly@gmail.com : সবুজ দাস : সবুজ দাস
  4. engr.mahadiviruss@gmail.com : Mahadi Hasan : Mahadi Hasan
শনিবার, ২১ নভেম্বর ২০২০, ০১:২৩ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
***পরীক্ষামূলক সম্প্রচার*** বাংলাদেশের সকল যায়গা থেকেই শিক্ষানবিশ সাংবাদিক নেওয়া হচ্ছে, যারা আগ্রহী তারা ছবি, ভোটার আইডি কার্ড, মোবাইল নাম্বার সহ বায়োডাটা পাঠান infomvaly@gmail.com
প্রধান খবর
করোনা ভাইরাস সনাক্তকরণ এর গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কিট প্রস্তুত। | BBC NEWS BANGLA এবার নুসরাত ফারিয়ার অর্ধনগ্ন ছবি ফাঁস, ভক্তদের তোলপাড় | BBC NEWS BANGLA অভিনেত্রীকে অশ্লীলভাবে ধর্ষণের হুমকি, অতঃপর… | BBC NEWS BANGLA দ্বিতীয় বিয়ে করেও সাবেক স্বামীকে সময় দিচ্ছেন অভিনেত্রী! | BBC NEWS BANGLA রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে জাতিসংঘ প্রস্তাবের পক্ষে ১৩২ দেশ, ভোট দেয়নি ভারত, বিপক্ষে চীন | BBC NEWS BANGLA সাকিবকে হত্যার হুমকিদাতা গ্রেফতার | BBC NEWS BANGLA অটোপাস নয়, পরীক্ষা দিতে আগ্রহী শিক্ষার্থীরা | BBC NEWS BANGLA একি হাল অপু-নিরবের! | BBC NEWS BANGLA মানি লন্ডারিং মামলায় গ্রেফতার দেখানো হলো সম্রাটকে | BBC NEWS BANGLA এএসপি আনিসুল করিমের মৃত্যুর ঘটনায় মামলা | BBC NEWS BANGLA রায়হান হত্যা মামলায় এসআই আকবর ৭ দিনের রিমান্ডে | BBC NEWS BANGLA অবৈধ হ্যান্ডসেট বন্ধে ৩০ কোটি টাকায় প্রযুক্তি কিনছে বিটিআরসি | BBC NEWS BANGLA থাইল্যান্ডে সেলিম প্রধানের ‘৭ কোম্পানি’ | BBC NEWS BANGLA পুরুষরা বয়স ধরে রাখতে যা করবেন | BBC NEWS BANGLA উৎসবের মরসুমে সঙ্গীর মনে আলো জ্বালতে যা যা করতেই হবে | BBC NEWS BANGLA আবারও বাড়ছে স্বর্ণের দাম! | BBC NEWS BANGLA জুয়া খেলায় বিপাকে তামান্না! | BBC NEWS BANGLA কমলা হ্যারিসকে নিয়ে ১১ বছর আগে মল্লিকা যা বলেছিলেন | BBC NEWS BANGLA আওয়ামী লীগ জনগণের মন জয় করেই ক্ষমতায় এসেছে : কাদের | BBC NEWS BANGLA রায়হান হত্যা : এসআই আকবর গ্রেফতার | BBC NEWS BANGLA রোহিঙ্গা দম্পতির বাসা থেকে কোটি টাকা উদ্ধার | BBC NEWS BANGLA

শ্রমিকের মুজুরি দেয়নি দুই হাজার কারখানা।

  • শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২০
  • ৫২ বার পড়া হয়েছে

বকেয়া বেতনের দাবিতে আশুলিয়ার খেজুরবাগান এলাকায় বিক্ষোভ করেন পোশাকশ্রমিকেরা। কারখানা মালিকপক্ষ বেতন নিয়ে টালবাহানা করছে বলে অভিযোগ তাঁদের। ঢাকা, ১৬ এপ্রিল। ছবি: খালেদ সরকার

করোনার এই সংকটে মাসের অর্ধেক শেষ হয়ে গেলেও সাভার-আশুলিয়া, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, চট্টগ্রাম, নরসিংদী, ময়মনসিংহ ও খুলনার প্রায় দুই হাজার কারখানা বৃহস্পতিবার পর্যন্ত শ্রমিকের মজুরি পরিশোধ করেনি। এসব এলাকায় তৈরি পোশাক, বস্ত্র, সিরামিক, জুতা, পাটকলসহ বিভিন্ন ধরনের কারখানা রয়েছে প্রায় সাড়ে সাত হাজার।

শিল্প পুলিশের দেওয়া তথ্যানুযায়ী, সাভার-আশুলিয়া, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, চট্টগ্রাম, নরসিংদী, ময়মনসিংহ ও খুলনায় কারখানার সংখ্যা ৭ হাজার ৬২৯। তার মধ্যে পোশাক ও বস্ত্র কারখানার সংখ্যা ৩ হাজার ৪০৫। বাকি ৪ হাজার ২২৪টি অন্য কারখানা। তবে শিল্প পুলিশের হিসাবে, ঢাকা মহানগরীর শিল্পকারখানার তথ্য-উপাত্ত নেই।

শিল্প পুলিশের সদর দপ্তরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আমজাদ হোসাইন জানান, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ৭ হাজার ৬২৯ কারখানার মধ্যে ৫ হাজার ৬২৫টি শ্রমিকের মজুরি পরিশোধ করেছে। বাকি ২ হাজার ৩৬টি কারখানা বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মজুরি দেয়নি।

অবশ্য ১৬ এপ্রিলের মধ্যে মজুরি দিতে ব্যর্থ কারখানা–মালিকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান। গত সোমবার প্রতিমন্ত্রীর এই বিবৃতির পর বুধবার কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর (ডিআইএফই) বিজ্ঞপ্তিতে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে মজুরি না দিতে ব্যর্থ কারখানা–মালিকদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি আগামী অর্থবছর সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স নবায়ন করা হবে না বলে জানিয়েছে।

অবশ্য শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত সময়ে মজুরি দিতে ব্যর্থ দুই হাজার কারখানার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে কি না, জানতে ডিআইএফইর মহাপরিদর্শক শিবনাথ রায়ের সঙ্গে বৃহস্পতিবার রাতে যোগযোগ করে তাঁকে পাওয়া যায়নি।

বিজ্ঞাপন

পোশাকশ্রমিকেরা বিক্ষুব্ধ
তৈরি পোশাকশিল্পের মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ এবং বিকেএমইএ ১৬ এপ্রিলের মধ্যে মজুরি পরিশোধ করতে তাদের সদস্যদের প্রতি অনুরোধ করেছিল। তবে অনেক কারখানার মালিকই নির্ধারিত সময়ে মজুরি দিতে পারেননি। মজুরি না পেয়ে রাজধানীর পাশাপাশি সাভার-আশুলিয়া, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, চট্টগ্রাম এবং ময়মনসিংহে ৫০টির বেশি পোশাক ও বস্ত্র কারখানার শ্রমিকেরাও বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ করেন। বিভিন্ন মহাসড়ক অবরোধের ঘটনাও ঘটেছে। 

তৈরি পোশাকশিল্পের মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ দাবি করেছে, তাদের সংগঠনের সরাসরি রপ্তানিকারক ২ হাজার ২৭৪টি কারখানার মধ্যে গতকাল পর্যন্ত মজুরি দিয়েছে ৭২ শতাংশ বা ১ হাজার ৬৬৫টি কারখানা। তাতে ২৪ লাখ ৭২ হাজার শ্রমিকের মধ্যে ৮৭ শতাংশ বা ২১ লাখ ৫৯ হাজার মজুরি পেয়েছে বলে দাবি করছে তারা। অন্যদিকে বিকেএমইএ দাবি করেছে, তাদের সচল কারখানা ৮৩৩টি। তার মধ্যে গতকাল ৫১৩ কারখানার তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। কারখানাগুলোর মধ্যে ৪৭৭টি মজুরি পরিশোধ করেছে।

শিল্প পুলিশ জানায়, সাভার ও আশুলিয়ার এ ওয়ান বিডি, অ্যালাইন অ্যাপারেল, ফিউচার ক্লোথিং, আদিয়ার অ্যাপারেলস, জেড অ্যাপারেলস, ক্রিস্টাল কম্পোজিট, জেড বিডি অ্যাপারেল, পেনটাফোর্ড অ্যাপারেলসসহ ১২ কারখানার শ্রমিকেরা বৃহস্পতিবার মজুরি না পেয়ে বিক্ষোভ করেন। গাজীপুরের মাদার ফ্যাশন, শাহ মাকদুম গার্মেন্টস, প্রিন্স সোয়েটার, কেজি গার্মেন্টস, এলাবার্ট ফ্যাশন, স্টাইল ক্রাফট, উলেন ওয়্যার, ডিজাইন এক্সিস, আয়েসা ও গালিয়া ফ্যাশন, বডি ফ্যাশনসহ ২২ কারখানার শ্রমিকেরা মজুরির দাবিতে বিক্ষোভ করেছে।

এ ছাড়া নারায়ণগঞ্জের টিএস স্পোর্টস, ফাহিম ফ্যাশন, মার্টিন নিটওয়্যার ও মনোরম অ্যাপারেলস এবং চট্টগ্রামের ড্রাগনি ফ্যাশন, এঅ্যান্ডবি ফ্যাশন এবং এক্সিম ফ্যাশনের শ্রমিকেরা মজুরির দাবিতে বিক্ষোভ করেন। ময়মনসিংহের আইডিয়াল স্পিনিং, ইমপ্রোসিভ টেক্সটাইল, সাবাব ফেব্রিকস, সীমা স্পিনিং, বাশার স্পিনিং, গ্লোরি স্পিনিং, ওরকিট জিও টেক্সটাইল, এমজি কটনসহ আরও কয়েকটি কারখানার শ্রমিকেরা মজুরি না পেয়ে বিক্ষোভ করেন বলে নিশ্চিত করেছে শিল্প পুলিশ।

জানতে চাইলে বিজিএমইএর সভাপতি রুবানা হক বলেন, ‘আমাদের সদস্য কারখানার ৮৭ শতাংশ শ্রমিক মজুরি পেয়ে গেছে। যেসব কারখানা এখনো মজুরি দেয়নি, তাদের অধিকাংশই ছোট ও মাঝারি। আমরা আর্থিক সংকটে থাকা কারখানাগুলোকে সহায়তায় কাজ করছি। তা ছাড়া লকডাউনের কারণেও মজুরি প্রদান কিছুটা বিঘ্নিত হচ্ছে।’
অন্যদিকে বিকেএমইএর সহসভাপতি মোহাম্মদ হাতেম প্রথম আলোকে বলেন, যেসব কারখানা মজুরি পরিশোধ করেনি, তাদের অধিকাংশই আগামী সপ্তাহে দেবে। তবে কিছু কারখানা আর্থিক সংকটের কারণে ২৬ এপ্রিল

এমনকি ৩০ এপ্রিল দেবে বলে জানাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতির সভাপ্রধান তাসলিমা আখতার, সাধারণ সম্পাদক জুলহাস নাইন বাবু ও সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম এক যৌথ বিবৃতিতে বৃহস্পতিবার বলেছেন, একদিকে করোনার আতঙ্ক আর অন্যদিকে মজুরির অর্থ না পাওয়ার আতঙ্কে শ্রমিকেরা হিমশিম খাচ্ছেন। আজকের বিপদের দিনে তাঁদের পাশে দাঁড়ানোর দায়িত্ব সরকার, মালিক ও ক্রেতাদের। তাঁরা বলেন, মালিকপক্ষ যদি মজুরি দিতে না পারে, তাহলে সরকারকেই দায়িত্ব নিতে হবে। একই সঙ্গে শ্রমিকদের বিপদে জরুরি নিরাপত্তা তহবিল গঠনের জন্য মালিক ও বিদেশি ক্রেতাদের চাপ দিতে হবে।

অনেক কারখানা মজুরি পরিশোধ না করা ও কারখানা লে-অফ ঘোষণার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় শ্রম ভবনের সামনে বিক্ষোভ করে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জলি তালুকদার অভিযোগ করে বলেন, গত চার সপ্তাহে কমপক্ষে ৩০ হাজার শ্রমিক ছাঁটাইয়ের শিকার হয়েছে। পরে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শ্রমিকদের কাছ থেকে তথ্য নিয়েই ছাঁটাই হওয়া শ্রমিকের তালিকাটি করা।

সুত্র-প্রথম আলো

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর

Categories

© BBCNewsbangla All rights reserved © 2020. প্রবেশকরুন
Theme Customized By BreakingNews